সিলেটে পুলিশের নিষ্ঠুর নির্যাতনে পঙ্গু মহানগর শিবির নেতা সোহেল

ডিসেম্বর ২৩, ২০১৩, ১০:২২ অপরাহ্ণ 👉 এই সংবাদটি ৩৪ বার পড়া হয়েছে

Loading...

সিলেট ২৩ ডিসেম্বর (জুড়ী নিউজ): একজন সুস’-সবল যুবককে অল্প সময়ের ব্যবধানে কিভাবে পঙ্গু হতে হয় তার নজির স’াপন করল সিলেট কোতয়ালী থানা পুলিশ। গত শনিবার বিকালে নগরীর জিন্দাবাজার এলাকা থেকে পুলিশ আটক করে সিলেট মহানগর শিবির নেতা সুহেল আহমদকে। ঘটনাস’লেই তাকে বন্ধুকের বাট দিয়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করে পুলিশ। এতে ঘটনাস’লেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। তার অপরাধ ছিল ইসলামী ছাত্রশিবিরের নামে ব্যানার বহন করছিলেন তিনি। অজ্ঞান অবস’ায় তাকে টেনে-হেচড়ে গাড়িতে তুলে আবার শুরু হয় নির্যাতন। বুট দিয়ে তার পায়ের হাড় ভেঙ্গে দেয় অতিউৎ্‌সাহী পুলিশের সদস্যরা। তাকে নিয়ে কোতোয়ালী থানা চত্বরে প্রবেশ করে আবারও শুরু হয় নির্যাতন। চোখ বেধে বিভিন্ন বিষয়ে শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। জিজ্ঞাসাবাদে তথ্য না দেয়ায় তার পায়ের নখ উঠিয়ে নেয় পুলিশ। বিভিন্ন ঘটনার ছবি দেখিয়ে তাতে তার নিজের সম্পৃক্ততা ও শিবিরের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করতে বলা হয়। স্বীকার না করায় আবারও শুরু হয় নির্যাতন। নির্যাতনের পর নির্যাতনে তিনি এখন কথা বলতে পারছেন না। হারাতে বসেছেন তার পা। পায়ের এঙরে করানোর অনুরোধ করা হলেও পুলিশ তা করতে দেয়নি। জাতির বিবেকের কাছে প্রশ্ন কী তার এমন অপরাধ যে তাকে এভাবে নির্যাতন ভোগ করতে হল? দিনে-দুপুরে শহরের প্রাণকেন্দ্রে ডাকাতির মত ঘটনায় পুলিশ নিরব! কত খুনী, ধর্ষনকারী, অপরাধী স্বাধীন হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে, কই? তাদেরতো নির্যাতন তো দুরে থাক গ্রেফতার পর্যন্ত করছে না পুলিশ। আদালতে হাজিরের পূর্বে জিজ্ঞাসাবাদের বা রিমান্ডের কোনো অনুমতি ছাড়াই পুলিশী হেফাজতে এধরনের ঘটনা নজিরবিহীন। কোথায় আজ তথাকথিত মানবাধিকার সংস’া গুলো? আজ তাদের তৎ্‌পরতা দেখতে চায় দেশের ছাত্রসমাজ।
::জুড়ী নিউজ::প্রতিনিধি/কেইউ/ডিইসি/২৩১২১৩/০১৫

loading...
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা আংশিক নকল করে বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি