চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাদের সাথে খালেদার বৈঠক

অক্টোবর ১৬, ২০১২, ১১:৩৮ অপরাহ্ণ 👉 এই সংবাদটি ২৬ বার পড়া হয়েছে

Loading...

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে স্বাগত জানিয়ে নৈশভোজের আয়োজন করেছে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিসি)। তবে ওই নৈশভোজের আগে দেশটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক মন্ত্রী ওয়াং জিয়ারুই এর সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের বিরোধী দলনেতা।

সোমবার সন্ধ্যায় বেইজিংয়ে সিপিসির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সদর দফতরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সোমবার সকালে ব্যাংকক থেকে রওয়ানা হয়ে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সোয়া ছ’টায় বেইজিং ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে নামেন খালেদা জিয়া।তার আগে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে চীন সফরের উদ্দেশ্যে রোববার দুপুরে ঢাকা থেকে রওয়ানা হয়ে বিকেলে ব্যাংকক পৌছেন তিনি।

ব্যাংককে রাতযাপন শেষে সোমবার তিনি চীন পৌছান।  বিমানবন্দরে তাকে সাদর অভ্যর্থনা জানান চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের উপ-মহাপরিচালক হুইহুয়া রাও। সেখান থেকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে তাকে দিয়াওউতাই গেস্ট হাউসে নিয়ে যাওয়া হয়। চীন সফরকালে সেখানেই থাকবেন খালেদা ও তার সফরসঙ্গীরা।

ওয়াং জিয়ারুই এর সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশ ও চীনের দ্বিপক্ষিক সম্পর্কের নানা দিক নিয়ে কথা বলেন খালেদা জিয়া। এ সময় প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সময়ে শুরু হওয়া বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ককে এগিয়ে নেওয়ার জন্য খালেদা জিয়াকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্যও খালেদা জিয়াকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

এ সময় চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আসন্ন ১৮তম কংগ্রেসের ব্যস্ততার মাঝেও তাকে অতিথি করার জন্য ধন্যবাদ জানান খালেদা জিয়া।

এছাড়া বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও অবকাঠামো উন্নয়নের সহযোগিতা দেওয়ার জন্য চীনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আগামীতেও এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন বিএনপি প্রধান।

এ সময় ওয়াং জিয়ারুই এর সঙ্গে ছিলেন তার উপমন্ত্রী শেন ফেনশিয়ান, আন্তর্জাতিক বিভাগের মহাপরিচালক শেন বেইলিসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

বস্তুত তার দল বিএনপির প্রতি বিভিন্ন দেশের সমর্থন আদায় ও সম্পর্ক বাড়ানোর কূটনৈতিক পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই খালেদা জিয়া চীন সফর গেছেন বলে জানিয়েছে দলীয় সূত্র।

তার সফরসঙ্গী হিসেবে আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ভাইস-চেয়ারম্যান শমসের মোবিন চৌধুরী, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান, ব্যক্তিগত সহকারী অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস প্রমুখ।

আগামী ২০ অক্টোবর ব্যাংকক হয়ে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। এর আগে ২০১০ সালে সর্বশেষ চীন সফরে গিয়েছিলেন বিএনপি প্রধান।

সূত্রঃ অলটাইম নিউজ

loading...
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা আংশিক নকল করে বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি