অস্ত্রোপচারে আলাদা হলো তোফা-তহুরা

আগস্ট ১, ২০১৭, ৫:৪৪ অপরাহ্ণ 👉 এই সংবাদটি ১৫১ বার পড়া হয়েছে

Loading...

অনলাইন ডেস্ক: গাইবান্ধার জোড়া লাগা জমজ শিশু তোফা ও তহুরাকে অস্ত্রোপচার মাধ্যমে আলাদা করা হয়েছে । বর্তমানে তারা সুস্থ আছে। আলাদা করার পর ওই দুই শিশুকে দুটো অপারেশন থিয়েটারে রেখে দুই দলে ভাগ হয়ে কাজ করছেন সার্জনরা। পুরো প্রক্রিয়া শেষ করতে আরও কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে। অস্ত্রোপচারে অংশ নেওয়া বিভিন্ন বিভাগের কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। চিকিৎসক রাজিউল হাসান, এস এম শফিকুল আলম, অসীত চন্দ্র সরকার, আশরাফুল হক, আব্দুল হানিফ ও কানিজ হাসিনা জানান, দুই শিশুর স্পাইনাল কর্ড, মেরুদণ্ড, পায়ুপথ ও প্রস্রাবের রাস্তা আলাদা করা হয়েছে। এর আগে সকাল পৌনে ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জোড়া লাগা দুই শিশুকে আলাদা করতে অস্ত্রোপচার শুরু হয়।   সকালে ঢামেক হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক আশরাফুল হক কাজল জানান, সকাল নটার দিকে তাদের অজ্ঞান করা হয়েছে। তোফা ও তহুরার মাথা, হাত, পা- সব আলাদা। তবে তাদের পায়ুপথ একটি। অস্ত্রোপচারে তাদের মৃত্যুর আশংকা নেই। তবে নিচের দিকে মেরুদণ্ড যুক্ত থাকায় খুব জটিল ধরনের অপারেশন হবে। একটু এদিক সেদিক হলে সারাজীবন পায়ুপথ সংকটে ভুগতে হতে পারে। তবে অস্ত্রোপচার সফল হলে সম্পূর্ণ সুস্থ-স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারবে ওরা। তিনি আরও জানান, অস্ত্রোপচারে ছয় ঘণ্টার মতো সময় লাগতে পারে। এর মধ্যে দু’বার বিরতি নেওয়া হবে। এ অস্ত্রোপচারে বিভিন্ন বিভাগের প্রায় ১৬ জন সার্জন যুক্ত থাকবেন।  তোফা ও তহুরার এ শারীরিক অবস্থাকে চিকিৎসাবিজ্ঞানে বলা হয় ‘পাইগোপেগাস’। এ ধরনের শিশুদের ক্ষেত্রে পশ্চাদ্দেশ জোড়া লাগানো থাকে। বাংলাদেশের ইতিহাসে পাইগোপেগাস শিশু আলাদা করার ঘটনা এটাই প্রথম বলে জানান চিকিৎসকরা। এর আগে দেশে জোড়া জমজ শিশু অস্ত্রোপচারে আলাদা করার ঘটনা থাকলেও সেগুলোর ধরন ছিল ভিন্ন।

loading...
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা আংশিক নকল করে বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি